সাধারণ জিজ্ঞাসা

প্রশ্ন-১: আমি আমার মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে D ইউনিটে আবেদন করেছিলাম। একই নম্বর ব্যবহার করে আমার বন্ধুর জন্য D ইউনিটে আবেদন করতে পারছি না কেন?

উত্তর: একই মোবাইল নম্বর দিয়ে কোন ইউনিটে একটি মাত্র আবেদন করা যাবে। তবে ঐ নম্বর ব্যবহার করে আপনি অন্য ইউনিটেও একটি মাত্র আবেদন করতে পারবেন। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-২: আমার প্রবেশপত্রে ছবি এবং স্বাক্ষর ভুল আছে। সংশোধনের কোন সুযোগ আছে কি?

উত্তর: ভুল প্রবেশপত্র সংশোধন করতে হলে যে মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে আবেদন করেছেন, শুধুমাত্র সেই নম্বর থেকে অনুসন্ধানে প্রদত্ত যে কোন নম্বরে ফোন করে এ সংক্রান্ত সহযোগিতা চাইতে হবে। যাচাই-বাছাই শেষে আবেদনকারীকে পুনরায় ওয়েবসাইটে গিয়ে নতুন করে ছবি ও স্বাক্ষর আপলোডের সুযোগ দেয়া হবে। তবে তা অবশ্যই ১৫ নভেম্বর ২০১৭ তারিখের মধ্যে করতে হবে। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-৩: আমার প্রবেশপত্রে "প্রশ্নপত্রের ধরনঃ বাংলা" (অথবা Medium of Question: English) লিখা আছে। এর অর্থ কি?

উত্তর: প্রশ্নপত্রের ধরনঃ বাংলা থাকলে আপনাকে পরীক্ষার হলে যে প্রশ্নপত্রটি দেয়া হবে, তা বাংলা ভাষায় মুদ্রিত থাকবে। আর Medium of Question: English থাকলে আপনাকে পরীক্ষার হলে যে প্রশ্নপত্রটি দেয়া হবে, তা ইংরেজি ভাষায় মুদ্রিত থাকবে। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-৪: প্রবেশপত্র ডাউনলোডের সময় ছবি ও স্বাক্ষর আপলোড করে প্রশ্নপত্রের ধরন বাংলার পরিবর্তে ভুলক্রমে English সিলেক্ট করে ফেলাতে আমার প্রবেশপত্রে Medium of Question: English লিখা আছে। এখন আমি কি করবো?

উত্তর: আবেদনকারী যে মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে আবেদন করেছেন, শুধুমাত্র সেই নম্বর থেকে অনুসন্ধানে প্রদত্ত যে কোন নম্বরে ফোন করে এ সংক্রান্ত সহযোগিতা চাইতে হবে। যাচাই-বাছাই শেষে আবেদনকারীকে পুনরায় ওয়েবসাইট থেকে সংশোধিত প্রবেশপত্র সংগ্রহ করতে হবে। তবে তা অবশ্যই ১৫ নভেম্বর ২০১৭ তারিখের মধ্যে করতে হবে। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-৫: প্রবেশপত্র প্রিন্ট করেছিলাম, কিন্তু তা হারিয়ে গেছে। পুনরায় ডাউনলোড করতে পারব কি?

উত্তর: একবার প্রবেশপত্র ডাউনলোড করলে, Bill Number ও Transaction ID দিয়ে লগ-ইন করে পরবর্তীতে যতবার খুশী তা ডাউনলোড করা যাবে, তবে অবশ্যই তা ১৫ নভেম্বর ২০১৭ তারিখ রাত ১১:৫৯ মিনিটের মধ্যে। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-৬: আমি ডাচ-বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং রকেট-এর মাধ্যমে ভুল বিল নম্বরে আবেদন ফি প্রদান করেছি। এখন প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারছিনা। উপায় কি?

উত্তর: সঠিক বিল নম্বরের পরিবর্তে ভুল বিল নম্বরের মাধ্যমে আবেদন ফি প্রদান করলে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করা যাবে না। এক্ষেত্রে আবেদনকারী যে মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে আবেদন করেছেন, শুধুমাত্র সেই নম্বর থেকে অনুসন্ধানে প্রদত্ত যে কোন নম্বরে ফোন করে এ সংক্রান্ত সহযোগিতা চাইতে হবে। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-৭: আমি ডাচ-বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং রকেট-এর মাধ্যমে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিলার আইডি 1902 এর পরিবর্তে অন্য বিলার আইডিতে আবেদন ফি প্রদান করেছি। এখন প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারছিনা। উপায় কি?

উত্তর: এটি আপাতত সমাধানযোগ্য নয়। আপনাকে অবশ্যই 1902 বিলার আইডিতে আগের বিল নম্বর ব্যবহার করে পুনরায় আবেদন ফি জমা দিতে হবে। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-৮: আমি আমার বিল নম্বর হারিয়ে ফেলেছি। ফলে ডাচ-বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং রকেট-এর মাধ্যমে 1902 বিলার আইডি'তে নির্ধারিত আবেদন ফি জমা দিতে পারছিনা। বিল নম্বরটি পুনরুদ্ধার করা যাবে কি?

উত্তর: বিল নম্বর পুনরুদ্ধারের জন্য অ্যাডমিশন ওয়েব সাইটের অনুসন্ধান মেনুতে গিয়ে বিল নম্বর পুনরুদ্ধার ক্লিক করুন। ফর্মটি যথাযথভাবে পূরণ করে Submit করুন। স্ক্রীনে আপনার ভুলে যাওয়া বিল নম্বরটি দেখতে পাবেন। এছাড়া আবেদনকারী যে মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে আবেদন করেছেন, শুধুমাত্র সেই নম্বর থেকে অনুসন্ধানে প্রদত্ত যে কোন নম্বরে ফোন করেও এ সংক্রান্ত সহযোগিতা চাইতে পারেন। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-৯: আমি আমার ট্রানজেকশন আইডি হারিয়ে ফেলেছি। এখন প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারছিনা। ট্রানজেকশন আইডি পুনরুদ্ধার করা যাবে কি?

উত্তর: আবেদনকারী যে মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে আবেদন করেছেন, শুধুমাত্র সেই নম্বর থেকে অনুসন্ধানে প্রদত্ত যে কোন নম্বরে ফোন করে এ সংক্রান্ত সহযোগিতা চাইতে পারেন। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-১০ আমি ডাচ-বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং রকেট-এর মাধ্যমে একটি ইউনিটের আবেদন ফি-এর আংশিক পরিশোধ করেছি। অবশিষ্ট ফি পুনরায় একই বিল নম্বরে পরিশোধ করে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করা যাবে কি?

উত্তর: না। যে কোন ইউনিটে আবেদনের ক্ষেত্রে নির্ধারিত আবেদন ফি একবারে পরিশোধ করতে হবে। কোন partial payment গ্রহণযোগ্য নয়।


প্রশ্ন-১১: প্রবেশপত্র ডাউনলোডের সময় ভুল ছবি আপলোড করা হয়েছে। কিভাবে এটি সংশোধন করা যাবে?

উত্তর: প্রবেশপত্র ডাউনলোডের সময় ভুল ছবি বা স্বাক্ষর আপলোড হলে তা সংশোধন করা যাবে। সেক্ষেত্রে আবেদনকারী যে মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে আবেদন করেছেন, শুধুমাত্র সেই নম্বর থেকে অনুসন্ধানে প্রদত্ত যে কোন নম্বরে ফোন করেও এ সংক্রান্ত সহযোগিতা চাইতে হবে। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-১২: DBBL মোবাইল ব্যাংকিং রকেট-এর মাধ্যমে টাকা জমাদানের প্রক্রিয়া কি?

উত্তর: DBBL মোবাইল ব্যাংকিং রকেট-এর মাধ্যমে টাকা জমাদানের প্রক্রিয়া নিম্নরূপঃ

  i)

রকেট অ্যাকাউটের মূল মেনুতে প্রবেশের জন্য *322# ডায়াল করুন।

  ii)

Payment অপশনটি সিলেক্ট করুন।

  iii)

অতঃপর Bill Pay সিলেক্ট করুন।

  iv)

Biller ID হিসেবে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিলার আইডি 1902 টাইপ করুন।

  v)

Bill Number হিসেবে ইতিপূর্বে SMS-এর মাধ্যমে প্রাপ্ত বিল নম্বর টাইপ করুন। এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন যে বিল নম্বর অবশ্যই ৬ ডিজিটে হতে হবে। বিল নম্বরের সাথে ইউনিটের নাম বা অন্য কোন ক্যারেক্টার যোগ করা যাবে না

  vi)

Amount হিসেবে আবেদনকৃত ইউনিটের নির্ধারিত ফি (550 টাকা) টাইপ করুন।

  vii)

এবার আপনার বা এজেন্টের রকেট অ্যাকাউন্ট-এর PIN টাইপ করুন।

  viii)

পেমেন্ট প্রক্রিয়া শেষ হলে আপনার বা এজেন্টের মোবাইলে ফিরতি SMS-এর মাধ্যমে একটি Transaction ID (Txnid) আসবে। ঐ Transaction ID টি সযত্নে সংরক্ষণ করুন যা প্রবেশপত্র ডাউনলোডের জন্য দরকার হবে।


প্রশ্ন-১৩: আবেদনকারীর গ্রহণযোগ্য ছবি এবং স্বাক্ষর কোনটি হবে?

উত্তর: আবেদনকারীকে অবশ্যই মার্জিত ছবি ও স্বাক্ষর আপলোড করতে হবে। ছবি ও স্বাক্ষর সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাবলী নিম্নরূপঃ

 ১)

ছবি এবং স্বাক্ষর উভয়ই jpg টাইপের হতে হবে।

 ২)

ছবির ডাইমেনশন হবে 300 বাই 300 পিক্সেল (Width by Height) এবং ফাইল সাইজ 100 কিলোবাইটের বেশী নয়।

 ৩)

স্বাক্ষরের ডাইমেনশন হবে 300 বাই 80 পিক্সেল (Width by Height) এবং ফাইল সাইজ 60 কিলোবাইটের বেশী নয়।

প্রশ্ন-১৪: আমার ছবি এবং স্বাক্ষর সঠিকভাবে অ্যাডজাস্ট করতে পারছি না। কোন উপায় আছে?

উত্তর: ছবি এবং স্বাক্ষরের ডাইমেনশন ঠিক করার জন্য আপনি উইন্ডোজের MS Paint প্রোগ্রামের সহায়তা নিতে পারেন। প্রক্রিয়াটি নিম্নরূপঃ

 ক)

আপনার ছবি বা স্বাক্ষর MS Paint প্রোগ্রামের সাহায্যে ওপেন করুন।

 খ)

MS Paint চালু থাকা অবস্থায় Ctrl+W প্রেস করুন। ফলে Resize and Skew উইন্ডো প্রদর্শিত হবে।

 গ)

Percentage-এর পরিবর্তে Pixels অপশনটি সিলেক্ট করুন এবং Maintain aspect ratio থেকে টিক-মার্ক উঠিয়ে দিন।

 ঘ)

এবার HorizontalVertical বক্সের মধ্যে যথাক্রমে 300 এবং 300 (ছবি হলে) অথবা 300 এবং 80 (স্বাক্ষর হলে) টাইপ করে OK ক্লিক করুন।

 ঙ)

এবার jpg ফরম্যাটে ফাইলটি সেভ করুন। Done!!

প্রশ্ন-১৫: পরীক্ষার হলে ঘড়ি, মোবাইল ফোন, ক্যালকুলেটর ইত্যাদি নিয়ে প্রবেশ করা যাবে কি?

উত্তর: ভর্তি পরীক্ষার প্রবেশপত্র, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার মূল রেজিস্ট্রেশন কার্ড এবং সাধারণ বলপেন ছাড়া কোন প্রকার ক্যালকুলেটর, মোবাইল ফোন, ঘড়ি ও অন্য কোন সহায়ক ডিভাইস নিয়ে পরীক্ষার হলে আসা যাবে না। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-১৬: আমার এসএসসি এবং এইচএসসির তথ্যে একটু গড়মিল আছে। সমাধানের উপায় কি?

উত্তর: আপনার এসএসসি এবং এইচএসসি উভয় পরীক্ষার বোর্ডের নাম, পাশের সন, রোল নম্বর এবং রেজিস্ট্রেশন নম্বর উল্লেখ করে support@mbstu-admission.org এই ঠিকানায় ই-মেইল করুন। এছাড়া আবেদনকারী যে মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে আবেদন করেছেন, শুধুমাত্র সেই নম্বর থেকে অনুসন্ধানে প্রদত্ত যে কোন নম্বরে ফোন করেও এ সংক্রান্ত সহযোগিতা চাইতে পারেন। ধন্যবাদ!!!


প্রশ্ন-১৭: DBBL মোবাইল ব্যাংকিং রকেট-এর মাধ্যমে আবেদন ফি পরিশোধ করতে বিল নম্বরের সাথে কি ইউনিটের নাম টাইপ করতে হবে?

উত্তর: না। শুধুমাত্র ৬ ডিজিটের বিল নম্বর টাইপ করতে হবে। কোন মতেই বিল নম্বরের সাথে ইউনিটের নাম বা অন্য কোন ক্যারেক্টার যুক্ত করা যাবে না। ধন্যবাদ!!!

প্রশ্ন-১৮: মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে ১ম পর্ব স্নাতক শ্রেণীতে ভর্তির জন্য আমি অনলাইন আবেদনের প্রথম ধাপ সম্পন্ন করেছি, কিন্তু ১৫ নভেম্বর ২০১৭ তারিখের মধ্যে আবেদন ফি প্রদান করে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারিনি। প্রবেশপত্র ডাউনলোড কিংবা আবেদন ফি প্রদানের আর কোন সুযোগ আছে কি?

উত্তর: ৮ নভেম্বর ২০১৭ তারিখ রাত ১১:৫৯ মিনিটের পর নতুন করে আর কোন আবেদন করা যাবেনা। তবে ঐ সময়ের যারা আবেদনের প্রথম ধাপ সম্পন্ন করেছেন, অথচ আবেদন ফি প্রদান করেননি, তারা ১৫ নভেম্বর ২০১৭ তারিখ রাত ১১:৫৯ মিনিটের মধ্যে আবেদন ফি প্রদান করে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারবেন। ধন্যবাদ!


প্রশ্ন-১৯: আমি কোটায় আবেদন করতে চাই, কিন্তু কিভাবে?

উত্তর: মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মুক্তিযোদ্ধা/উপজাতি/পোষ্য/বিকেএসপি কোটায় আবেদনকারীগণকে ভর্তি পরীক্ষার উত্তরপত্রের (OMR শিটের) নির্দিষ্ট স্থানে বৃত্ত ভরাট করে নিজ কোটায় আবেদন নিশ্চিত করতে হবে। কোটার স্বপক্ষে ভর্তিযোগ্য ছাত্র-ছাত্রীদেরকে উপযুক্ত সনদ দাখিল করতে হবে। ধন্যবাদ!






Powered by:
Institute of Information Technology (IIT), Jahangirnagar University
Savar, Dhaka-1342, Bangladesh